এবারের নার্সিং ভর্তি পরীক্ষায় রাজু স্যারের নিউরন নার্সিং-এর অভাবনীয় সাফল্য

follow-upnews
0 0
খুলনা শাখা
চান্সপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের একাংশের সাথে নিউরন খুলনা শাখার পরিচালক রাজু স্যার।

নিউরন নার্সিং কোচিং-এর খুলনা শাখা (পিটিআই মোড় এবং বয়রা শাখা) এবার অভাবনীয় সাফল্য দেখিয়েছে। রাজু মণ্ডলের ক্ষুরধার পরিচালনায় বরাবরের মতো খুলনা শাখা এ সাফল্য পেয়েছে। খুলনা শাখা থেকে এবার ৪৩৮ জনের মধ্যে ১৮৬ জন চান্স পেয়েছে। এর মধ্যে প্রথম ১০০ জনের মধ্যে অন্তত ২০ জন রয়েছে। সমগ্র বাংলাদেশ থেকে এবার পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলো ১ লক্ষ ১ হাজার পরীক্ষার্থী। এরমধ্যে  ৫ হাজার ৯০০ জন মেধা তালিকায় রয়েছে। চান্সপ্রাপ্তদের অধিকাংশই মেয়ে শিক্ষার্থী, কারণ, মেয়েদের জন্য ৯০ শতাংশ সিট বরাদ্দ। নিউরন খুলনা শাখা গত ৪ বছরের মতো এবারও খুলনা নার্সিং-এ প্রথম হয়েছে।

এ সাফল্য সম্পর্কে খুলনা শাখার পরিচালক রাজু স্যার বলেন, “অপেক্ষাকৃত অস্বচ্ছল পরিবারের শিক্ষার্থীরা নার্সিং-এর মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি পেশা বেছে নিতে চায়, সেক্ষেত্রে আমি তাদের পাশে থাকতে পেরে নিজেকে খুব সৌভাগ্যবান মনে করছি। শিক্ষার্থীদের পরিবার আমার এবং আমার প্রতিষ্ঠানের দিকে তাকিয়ে থাকে, ফলে আমি সবসময় একটি দায়বদ্ধতার মধ্যে থাকি। আমি শতভাগ দিতে চেষ্টা করি। নিউরন সফল হয়েছে, কারণ, আমাদের অভিজ্ঞ শিক্ষকরা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের শুধু ক্লাসে পড়াননি, বরং শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক তদারকির মধ্যে রেখেছিলেন। পরিচালক হিসেবে আমি নিজেও চব্বিশ ঘণ্টা তাদের পাশে ছিলাম। আগামীতেও নার্সিং ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি।”

রাজু মণ্ডল
খুলনা নার্সিং-এ তৃতীয় পুষ্পিতা রানার হাতে ফুলের তোড়া তুলে দিচ্ছেন নিউরন নার্সিং ভর্তি কোচিং-এর পরিচালক রাজু স্যার।

 

খুলনা শাখা
নার্সিং ভর্তি পরীক্ষায় সমগ্র বাংলাদেশে মেধাতালিকায় ১৪তম এবং খুলনা নার্সিং-এ প্রথম স্বর্ণা আক্তার সুমির হাতে পুষ্প স্তবক তুলে দিচ্ছেন নিউরন নার্সিং ভর্তি কোচিং-এর পরিচালক রাজু স্যার এবং বাংলার শিক্ষক উত্তম মণ্ডল।
খুলনা শাখা
বরিশাল নার্সিং কলেজে মেধাতালিকায় প্রথম জান্নাতুল ইসলাম কারিমার হাতে পুষ্প স্তবক তুলে দিচ্ছেন নিউরন নার্সিং ভর্তি কোচিং-এর পরিচালক রাজু স্যার (ডানে) এবং শাখা ম্যানেজার জামাল হোসেন।
খুলনা শাখা
খুলনা নার্সিং কলেজে পঞ্চম রিয়া অধিকারীর হাতে ‍পুষ্প স্তবক তুলে দিচ্ছেন নিউরন নার্সিং ভর্তি কোচিং-এর পরিচালক রাজু স্যার।

 

 

Next Post

কুজনেটস্ কার্ভ কি “আল্লাহর নামে চলিলাম” টাইপের তত্ত্ব?

কুজনেটস্ কার্ভ একটি দেশের উন্নতি এবং তার নাগরিকদের আয় বৈষম্যের মধ্যে একটি সম্পর্ক নিরুপণ করে। রাশিয়ান-আমেরিকান অর্থনীতিবিদ সায়মন কুজনেটস্ ১৯৭১ সালে ইকোনোমিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে কাজ করে নোবেল পুরস্কার পান। তিনিই প্রথম জিডিপি হিসেব করার নিয়মটি আবিষ্কার করেন। তার আর একটি বড় কীর্তি হচ্ছে কুজনেটস্ কার্ভ। সায়মন কুজনেটস্ দেখিয়েছেন— একটি দেশ […]
আয় বৈষম্য এবং উন্নতির মধ্যে সম্পর্ক

এগুলো পড়তে পারেন