ঈদের সময় হলে থেকে যাওয়া ছাত্রেদের খাবার দিতে কুণ্ঠাবোধ করেছ ঢাবি প্রশাসন

follow-upnews
0 0

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিভিন্ন কারণে ঈদের সময়ও কিছু ছাত্র-ছাত্রী হলে থেকে যায়। হাজার হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে কিছু শিক্ষার্থী থেকে যাবে সেটিই সবার কাছে স্বাভাবিক। তবে ঢাবির বিভিন্ন হলে এবার একটু বেশি শিক্ষার্থীই ঈদুল আজহাতে বাড়ি যায়নি। ৩০ সেপ্টেম্বর বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা থাকায় অনেকের পড়াশুনার তাগিদ থাকায় বাড়িতে যায়নি।

প্রতিবছরই ঈদের দিনে হল প্রশাসন থেকে যাওয়া ছাত্রদের একবেলা খাওয়ায়। কিন্তু এবার নানান অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ উঠেছে, খাবার দেওয়ার আগে ছাত্রদের কাছে তাদের আবাসিক পরিচয় পত্র দেখতে চাওয়া হয়েছে। প্রতিবারই অবশ্য চাওয়া হয়। কিন্তু এটা তো সবারই জানা যে হলে থাকা শিক্ষার্থীরা প্রথম দুই বছর আবাসিক পরিচয়পত্র পায় না। তাহলে ছাত্রদের এভাবে অপমান করা কেন -প্রশ্ন তুলেছে জসীম উদ্দীন হলের কয়েকজন ছাত্র। তবে শিক্ষকদের তরফ থেকে ভিন্ন ব্যাখ্যা আছে, আবাসিক শিক্ষকরা বলছেন, অনেক বহিরাগত হলে আসে, তাই কোনো একটি ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে খাবার বণ্টন করা ছাড়া কোনো উপায় থাকে না।

অবশ্য ছাত্ররা বলছে অন্য কথা। তাদের দাবী, বহিরাগতরা ছাত্রনেতাদের সাথে থাকে। তারা ঠিকই খাবার পায়। খাবার পায় না প্রথম এবং দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্ররা, যাদের কার্ড নেই। অনেক ছাত্র নেতার রুমে খাবার অপচয় হয় বলে তারা জানিয়েছে।

Next Post

চাকরির জন্য পড়াশুনা: আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা ও আন্তঃরাষ্ট্রীয় চুক্তি সম্পর্ক

চাকরি পরীক্ষার সকল ধাপের জন্য (প্রিলি, লিখিত এবং ভাইভা) দেশে দেশে চুক্তির বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। সাধারণ জ্ঞান হিসেবে এ অংশ থেকে পরীক্ষায় প্রশ্ন আসেই। ভাইভায় এ সম্পর্কিত প্রশ্নোত্তর জিজ্ঞেস করা হয়। লিখিত পরীক্ষার এক কথায় উত্তর এবং টিকাকারে এ অংশ থেকে প্রশ্ন পরীক্ষায় আসে। তাছাড়া রচনামূলক প্রশ্ন লেখার জন্য চুক্তি সম্পর্কিত […]

এগুলো পড়তে পারেন